>> জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩০ ডিসেম্বর : শিক্ষামন্ত্রী >> ইয়েমেনের রাজধানী সানায় আবার সৌদি বিমান হামলা নিহত ৩ >> হবিগঞ্জে ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে ২ জন নিহত

নিরাপত্তা পরিষদে ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গোটা বিশ্বের প্রতিবাদ

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

UNSCজাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠকে জেরুজালেম শহরকে কেন্দ্র করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ঘোষণার বিরুদ্ধে সম্মিলিত প্রতিবাদ জানিয়েছে গোটা বিশ্ব। গতরাতে নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে এই জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে ট্রাম্প যে ঘোষণা দিয়েছেন নিরাপত্তা পরিষদের প্রায় সবগুলো দেশ তার বিরোধিতা করে। নিরাপত্তা পরিষদের অর্ধেকের বেশি সদস্যদেশের আহ্বানে এই জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকের শুরুতেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে মধ্যপ্রাচ্য আপোষ প্রক্রিয়ায় জাতিসংঘের বিশেষ সমন্বয়কারী নিকোলাই ম্লাদেনোভ বলেন, ট্রাম্পের এই ঘোষণার ফলে মধ্যপ্রাচ্যে ব্যাপক আকারে সহিংসতা বেড়ে যেতে পারে।

নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে সুইডেনের রাষ্ট্রদূত ওলোফ স্কুগ বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে আন্তর্জাতিক সনদ লঙ্ঘন করেছেন।

এ ছাড়া, মিশরের প্রতিনিধি আমরু আবুলআতা জোর দিয়ে বলেন, মুসলিম বিশ্ব জেরুজালেমকে এখনো ইসরাইলের দখলিকৃত একটি ফিলিস্তিনি শহর হিসেবেই জানে।

জাতিসংঘে নিযুক্ত ব্রিটেনের স্থায়ী প্রতিনিধি ম্যাথিউ রায়ক্রফ্ট নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠকে বলেন, ব্রিটিশ দূতাবাস তেল আবিব থেকে বায়তুল মুকাদ্দাসে স্থানান্তরের কোনো পরিকল্পনা লন্ডনের নেই। তিনি আরো বলেন, ব্রিটেন মার্কিন প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছে।

এরপর বক্তব্য রাখেন ফরাসি প্রতিনিধি ফ্রাঁসোয়া ডেলাত্রে বলেন, ট্রাম্পের ঘোষণায় প্যারিস উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে এবং দুঃখ প্রকাশ করছে।

জাতিসংঘে নিযুক্ত রুশ প্রতিনিধি ভ্যাসিলি নেবেনজিয়া বলেন, ট্রাম্পের ঘোষণায় মস্কো মারাত্মক উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে। রাশিয়া মনে করছে, এই ঘোষণার ফলে মধ্যপ্রাচ্য সংকট আরো জটিল আকার ধারণ করবে।

জাতিসংঘে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূতও ট্রাম্পের ঘোষণায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন। এ ছাড়াও বৈঠকে ইতালি, উরুগুয়ে, সেনেগাল, বলিভিয়া, ইথিওপিয়া, কাজাখস্তান, ইউক্রেন, জাপান ও জর্দানের প্রতিনিধিরা ট্রাম্পের ঘোষণার বিরোধিতা করে বক্তব্য রাখেন।

বৈঠকে জাতিসংঘে নিযুক্ত ফিলিস্তিনের প্রতিনিধি রিয়াদ মানসুর বলেন, জেরুজালেম ফিলিস্তিনি জনগণের রেড লাইন। ট্রাম্প যে ঘোষণাই দিন না কেন এই নগরী ফিলিস্তিনের অবিচ্ছেদ্য অংশ ছিল এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

তবে বৈঠকে মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি ট্রাম্পের ঘোষণার বিরুদ্ধে বিশ্ব সমাজের উদ্বেগ উপেক্ষা করে বলেন, ওয়াশিংটন জাতিসংঘকে ইসরাইলের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে দেবে না। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের এ বৈঠকে হ্যালির বক্তব্যের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন একমাত্র ইসরাইলের প্রতিনিধি ড্যানি ড্যানোন। ইসরাইল ও জর্দান বর্তমানে নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য না হলেও আলোচ্য বিষয়ের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট হওয়ার কারণে তাদের প্রতিনিধিদের বৈঠকে ডাকা হয়।

বৈঠক শেষে ফ্রান্স, জার্মানি, সুইডেন, ব্রিটেন ও ইতালির রাষ্ট্রদূতরা এক নজিরবিহীন পদক্ষেপ নিয়ে ট্রাম্পের ঘোষণাকে নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবের লঙ্ঘন বলে উল্লেখ করেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সম্প্রতি জেরুজালেম শহরকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে মার্কিন দূতাবাস তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে স্থানান্তরের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন। ইসরাইল ১৯৬৭ সালের যুদ্ধে জেরুজালেম শহর দখল করে নেয়।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ০৯.১২.২০১৭


Comments are closed.