>> বরগুণায় সাগরে ট্রলার ডুবি ৪ জেলে উদ্ধার ৪ জন নিখোঁজ >> টেষ্ট অধিনায়কত্ব হারালেন মুশফিকুর রহিম >> নতুন টেষ্ট অধিনায়ক সাকিব আল-হাসান সহ-অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ

বিপিএল-এ চিটাগংকে হারালো রংপুর মাশরাফির বিধ্বংসী ব্যাটিং

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

BPL Rangpurঅধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার ১৭ বলে ৪২ রানের বিধ্বংসী ব্যাটিং-এ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টুয়েন্টি টুয়েন্টি ক্রিকেটের পঞ্চম আসরে চট্টগ্রাম পর্বের চতুর্থ ও টুর্নামেন্টের ২৮তম ম্যাচে চিটাগং ভাইকিংসকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে রংপুর রাইডার্স। এই জয়ে ৮ খেলায় ৪ জয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্থস্থানে উঠে এলো রংপুর। সমানসংখ্যক ম্যাচে ২ জয়ে ৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের সপ্তম ও তলানিতেই থাকলো চিটাগং।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি ষ্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে চিটাগং-এর পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৮ রান করেন দক্ষিন আফ্রিকার ভ্যান জাইল। তার ৪০ বলের ইনিংসে ৩টি চার ও ৪টি ছক্কা ছিলো। এছাড়া সৌম্য সরকার ৩০, আফগানিস্তানের নাজিবুল্লাহ জাদরান ২৫ ও জিম্বাবুয়ের সিকান্দার রাজা ২২ রান করেন। ফলে ৭ উইকেটে ১৭৬ রান করে চিটাগং। রংপুরের মাশরাফি, মালিঙ্গা, নাহিদুল, রুবেল ও পেরেরা ১টি করে উইকেট নেন।

জয়ের জন্য ১৭৭ রানের টার্গেটে ধীরগতিতেই শুরু করে রংপুর রাইডার্স। প্রথম ৫ ওভার শেষে মাত্র ৩০ রান যোগ করতে পারেন দলের দুই মারকুটে ওপেনার ওয়েষ্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল ও নিউজিল্যান্ডের ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। ১৫ রান করে ম্যাককালাম ফিরে যাবার পর উইকেটে আসেন অধিনায়ক মাশরাফি।

পিঞ্চ হিটার হিসেবে তিন নম্বরে নেমে উইকেটের চারপাশে চার-ছক্কার ফুলঝুড়ি ফুটিয়েছেন মাশরাফি। অধিনায়কের মারমুখী ব্যাটিং-এ রান রেট বেড়ে যাওয়ায় লড়াইয়ে ফিরে আসে রংপুর। দ্বিতীয় উইকেটে গেইলের সাথে মাত্র ২৬ বলে ৬০ রান যোগ করেন ম্যাশ। ৯৬ রানের মধ্যে মাশরাফি-গেইল ফিরে গেলে আবারো চাপে পড়ে রংপুর। ৪টি চার ও ৩টি ছক্কায় মাত্র ১৭ বলে ৪২ রান করেন ম্যাশ। ২৫ বলে ৩৩ রান করেন গেইল।

এরপর মোহাম্মদ মিথুনের ২৯ বলে ৪৪ রানের লড়াইয়ে টিকে ছিলো রংপুর। তাই শেষ ওভারে ম্যাচ জয়ের জন্য রংপুরের প্রয়োজন ১৪ রান। চিটাগং-এর পেসার তাসকিন আহমেদের প্রথম দু’বল থেকে ১টি ছক্কায় ৮ রান তুলে নেন পেরেরা। তৃতীয় ও চতুর্থ বলে উইকেট পড়লে শেষ দু’বলে রংপুরের দরকার পড়ে ৬ রান। আর শেষ যখন ৩ রান দরকারে তখন ছক্কা হাকিয়ে রংপুরকে দুর্দান্ত জয় এনে দেন পেরেরা। ৩টি ছক্কায় ১৪ বলে ২৮ রানে অপরাজিত থাকেন পেরেরা। ম্যাচ সেরা হয়েছেন মাশরাফি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

চিটাগং ভাইকিংস
১৭৬/৭, ২০ ওভার (জাইল ৬৮, সৌম্য ৩০, নাহিদুল

রংপুর রাইডার্স
১৮০/৭, ২০ ওভার (মিথুন ৪৪, মাশরাফি ৪২, রিসি ১/১৩)।

ফল : রংপুর রাইডার্স ৩ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : মাশরাফি বিন মর্তুজা (রংপুর রাইডার্স)।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ২৬.১১.২০১৭


Comments are closed.