>> জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩০ ডিসেম্বর : শিক্ষামন্ত্রী >> ইয়েমেনের রাজধানী সানায় আবার সৌদি বিমান হামলা নিহত ৩ >> হবিগঞ্জে ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে ২ জন নিহত

বাড়ি পৌঁছানো হ’ল না শিমুলিয়া ঘাটেই ঈদ হাজার হাজার মানুষের

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

Ferry Ghat Shimulia 1বাড়ি পৌঁছানো হ’ল না! পরিবার-পরিজনের সঙ্গে ঈদ করার প্রবল বাসনা নিয়ে কর্মস্থল থেকে গ্রামের বাড়ির পথে রওনা দিলেও স্থল ও নৌপথের প্রতিকূলতায় গন্তব্যে পৌঁছাতে না পারা হাজার হাজার মানুষ ঈদের সকালেও আটকা পড়ে আছে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি ঘাটে।

শনিবার সকালে সারা দেশের মানুষ যখন উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ঈদ উদযাপন করছেন, জামাতে শরিক হয়ে কোলাকুলি করে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করছেন, তখন এসব যাত্রীকে পদ্মা পারাপারের অপেক্ষায় থাকতে দেখা গেছে। অনেকে আশেপাশের মসজিদ ও মাঠে ঈদের জামাতে শরিক হয়েছেন। পরিবার-পরিজনের সঙ্গে ঈদ করতে না পারায় অনেকে নিরবে চোখের জল ফেলেছেন।

ঈদের ছুটির কারণে ঘাটে থাকা খাবারের দোকানও বন্ধ। এ অবস্থায় ঈদের সকাল এক দুর্বিসহ ভোগান্তি নিয়ে এসেছে এসব যাত্রীদের জন্য। আটকে পড়া যাত্রীদের মতো ঈদ করতে পারেননি শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি ঘাটের দায়িত্বপ্রাপ্ত বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও। প্রতিটি ফেরিতে ঈদ উদযাপনের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ।

সকালে মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথে ৫০০ এরও বেশি গাড়ি পারাপারের অপেক্ষায় আছে। নাব্যতা সংকট এবং পদ্মার তীব্র স্রোতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চলছে ১৫টি ফেরি, এর মধ্যে বন্ধ আছে রো রো ফেরি চলাচল। শনিবার সকাল থেকেই যানবাহনগুলো ফেরিতে উঠার অপেক্ষায় লাইনে দাঁড়িয়ে আছে।

বিআইডব্লিউটিসির উপ-মহাব্যবস্থাপক খালেদ নেওয়াজ সকাল ১০টায় জানান, ‘আমরাও পরিবারের সঙ্গে ঈদের নামাজ আদায় করতে পারিনি। যাত্রীরা যারা এখানে আটকা পড়েছেন, আমাদের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সবাই মিলে বিআইডব্লিউটিসির অভ্যন্তরের মসজিদ চত্বরে ঈদের নামাজ আদায় করেছি। এ ছাড়া প্রতিটি ফেরিতে বিআইডব্লিউটিসির নিজস্ব অর্থায়নে রান্নার ব্যবস্থা হচ্ছে, যাতে আটকে পড়া যাত্রীদের আপ্যায়ন করা যায়।’

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক গিয়াস উদ্দিন পাটোয়ারি জানান, ঈদের দিন সকালে ঘাট এলাকায় পাঁচ শতাধিক গাড়ি পারাপারের অপেক্ষায় আছে। শুক্রবার রাত থেকে রো রো ফেরি চলাচলে নানা প্রতিকূলতার সম্মুখীন হচ্ছিল। তারপর থেকে রো রো ফেরি চলাচল বন্ধ আছে। বর্তমানে ১৫টি ফেরি চলছে নাব্যতা সংকট এবং উত্তাল পদ্মার তীব্র স্রোতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে। ঘাটে যাত্রীবাহী যানবাহনের সংখ্যাই বেশি আছে বলেও জানান তিনি।

বিআইডব্লিউটিসির এই কর্মকর্তা আরোও জানান, ঢাকা থেকে আসা অনেক গাড়ি গন্তব্যে পৌঁছাতে না পেরে ঢাকায় ফিরে গেছে।

-ফাইল ছবি

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ০২.০৯.২০১৭


Comments are closed.