>> জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩০ ডিসেম্বর : শিক্ষামন্ত্রী >> ইয়েমেনের রাজধানী সানায় আবার সৌদি বিমান হামলা নিহত ৩ >> হবিগঞ্জে ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে ২ জন নিহত

চট্টগ্রামের ৭ উপজেলার ৬০ গ্রামে আগামীকাল ঈদ

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

Eid ul Azhaচট্টগ্রাম জেলার ৭ উপজেলার প্রায় ৬০ গ্রামের নির্দিষ্টসংখ্যক মানুষ আগামীকাল শুক্রবার পবিত্র ঈদ উল আযহা উদযাপন করবেন। জেলার সাতকানিয়া উপজেলার মির্জারখীল দরবার শরীফের মুরিদগণ সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে অতীতের মতো এবারও একদিন আগে কোরবানি দিচ্ছেন। দরবার শরীফের মুরিদরা রোজা পালন এবং ঈদ উল ফিতরও একদিন আগে উদযাপন করেন।

মির্জাখীল দরবার শরীফের মুখপাত্র ও মির্জাখীল উচ্চবিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক বজলুল করিম চৌধুরী জানান, ‘মির্জাখীলের প্রায় পুরো গ্রামের মানুষ শুক্রবার ঈদ উল আযহার নামাজ আদায় ও কোরবানি দেবেন। প্রায় দুইশ’ বছর ধরে মির্জাখীল দরবার শরীফের মুরিদরা সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে এক দিন আগে রোজা পালন, ঈদ উল ফিতর ও ঈদ উল আযহা উদযাপন করে আসছেন। যেসব এলাকায় দরবার শরীফের মুরিদ বেশি রয়েছেন তারা নিজ নিজ এলাকায় ঈদের নামাজ আদায় ও কোরবানি করবেন। আর যেখানে দরবার শরীফের ভক্ত কম সেসব এলাকার মুরিদগণ মির্জাখীল দরবার শরীফে এসে ঈদের নামাজ আদায় করবেন।’

জানা যায়, মির্জারখীল দরবার শরীফের প্রতিষ্ঠাতা শাহ জাঁহাগীর হযরত শেখুল আরেফীন প্রায় দুইশ’ বছর পূর্বে সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে একদিন আগে তারাবির নামাজ আদায়, রোজা পালন, ঈদ উল ফিতর ও ঈদ উল আযহাসহ যাবতীয় ধর্মীয় দিবস পালন শুরু করেন। এরপর থেকে তাঁর খলিফা ও মুরিদগণ একই নিয়মে ঈদ উল আযহাসহ অন্যান্য দিবস পালন করে আসছেন। শুক্রবার সকাল ১০টায় দরবার শরীফের বর্তমান পীর শাহ জাঁহাগীর হযরত তাজুল আরেফীনের বড় ছেলে ড. হযরত মাওলানা মোহাম্মদ মকছুদুর রহমান ঈদের নামাজ পড়াবেন বলে জানা গেছে।

দরবার শরীফ সূত্রমতে, সাতকানিয়া উপজেলার মির্জাখীল, চরতি, সুইপুরা, বাজালিয়া, মনেয়াবাদ, পুরানগড়, গাটিয়াডেঙ্গা, মার্দাশা, রূপনগর, আলীনগর, সাতকানিয়া সদর; চন্দনাইশ উপজেলার বরকল, কেশুয়া, চর বরমা, হাশিমপুর, দোহাজারী, হাছনদন্ডী, বাইনজুরি, কানাইমাদারি, সাতবাড়িয়া, চন্দনাইশ সদর, কাঞ্চননগর, পূর্ব হারালা; বাঁশখালী উপজেলার পুঁইছড়ি, চাম্বল, ডোংরা, কালিপুর, শেখেরখীল, ছনুয়া, ভাদালিয়া, বড়ঘোনা; লোহাগাড়া উপজেলার চুনতি, আধুনগর, চাকফিরানী, আমিরাবাদ, পুঁটিবিলা, কলাউজান, বড়হাতিয়া; আনোয়ারা উপজেলার বরুমছড়া, তৈলারদ্বীপ, খাসহামা, কাটাখালী এবং বোয়ালখালী ও পটিয়া উপজেলার কয়েকটি গ্রামসহ চট্টগ্রামের ৭ উপজেলার অর্ধশতাধিক গ্রামের কিছু সংখ্যক মানুষ আগামিকাল ঈদ উল আযহার নামাজ আদায় ও পশু কোরবানি করবেন।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ৩১.০৮.২০১৭


Comments are closed.