>> কুমিল্লা বিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়ে রংপুর রাইডার্স বিপিএল ফাইনালে >> হবিগঞ্জে ৫ জেএমবি সদস্য আটক

হবিগঞ্জে জঙ্গি মোস্তাকের রিমান্ড বিষয়ে আদেশ বৃহস্পতিবার

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

Mostaqহবিগঞ্জ জেলায় মানি লন্ডারিং মামলায় সিআইডির হাতে গ্রেফতারকৃত জেএমবি জঙ্গী অর্থায়নকারী মোস্তাক আহমেদ এর রিমান্ড আদেশ বৃহস্পতিবার প্রদান করা হবে।

বুধবার হবিগঞ্জের মুখ্য বিচারিক হাকিম মোহাম্মদ সোলায়মান এর আদালতে রিমান্ড শুনানী হলে তিনি রাষ্ট্র পক্ষকে প্রয়োজনীয় রেফারেন্স দেয়ার জন্য বৃহস্পতিবার সময় নির্ধারণ করেন।

আদালত জানিয়েছে, মঙ্গলবার বিকেলে মোস্তাককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়। এ সময় তার বিরুদ্ধে ১০ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করা হলে বুধবার রিমান্ড শুনানীর জন্য সময় ধার্য্য করা হয়।

বুধবার রাষ্ট্র পক্ষে সিএসআই আল আমিন ১০ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করেন। তখন আসামী মোস্তাকের আইনজীবীরা মানি লন্ডারিং আইনে আসামেিক রিমান্ডে নেয়ার বিধান নেই বলে আপত্তি দেন। তখন বিজ্ঞ বিচারক মানি লন্ডারিং আইনে রিমান্ড চাওয়ার বিধান আছে কিনা তার রেফারেন্স দেখাতে রাষ্ট পক্ষকে বলেন। তাৎক্ষনিকভাবে তা দেখাতেক ব্যর্থ হলে তিনি বৃহস্পতিবার সময় নির্ধারণ করে দেন।

আসামী পক্ষে অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম, অ্যাভভোকেট নুরুজ্জামান, অ্যাডভোকেট আরিফ চৌধুরী ও অ্যাডভোকেট হাফিজুল ইসলাম শুনানীতে অংশ নেন।

আসামী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট নুরুজ্জামান জানান, মানি লন্ডারিং আইনে রিমান্ড চাওয়ার বিধান নেই। তবে ফৌজদারী কার্যবিধি থাকলে রিমান্ড চাওয়া যায়। মামলাটি ফৌজদারী কার্যবিধি অনুযায়ী হয়েছে কিনা স্পষ্ট না হওয়ায় বিজ্ঞ বিচারক রাষ্ট্রপক্ষকে আইন দেখাতে একদিন সময় দিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, মোস্তাকের বিরুদ্ধে এর আগেও মামলা হয়েছিল। সেখানে সে বিদেশ থেকে প্রাপ্ত অর্থ কিভাবে খরচ করেছে তার প্রমাণ রয়েছে। বিগত সময়ে পুলিশের প্রতিবেদনে তা উল্লেখ আছে। বুধবার শুনানীকালে তা আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে।

আদালত পরিদর্শক কামাল আহমেদ জানান, মামলার তদন্তের স্বার্থে আসামী মোস্তাকের বিরুদ্ধে ১০ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করাক এর আগে একাধিকবার জঙ্গি সন্দেহে পুলিশের কাছে আটক হয়।

জানা গেছে যে, সে এক সময় তুরস্কে ছিল এবং প্রচুর টাকা দেশে এনে বিভিন্ন মসজিদ, মক্তব ও মাদ্রাসায় বিতরণ করে। তার বিরুদ্ধে ৫টি নাশকতা মামলা রয়েছে। এর মাঝে একটি দ্রুত বিচার আইনের আওতাভূক্ত মামলা।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ০৯.০৮.২০১৭


Comments are closed.