>> নায়করাজ রাজ্জাকের দাফন আজ সকাল ১০টায় >> নারায়নগঞ্জ ৭ খুন মামলায় নূর হোসেন তারেক সাঈদসহ ১৫ জনের মৃত্যুদণ্ডেশ বহাল >> আইন সচিব জহিরুল হকের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ তিন মাস স্থগিত : হাইকোর্ট >> কোথাও কোথাও মাঝারি ধরণের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে >> পাবনায় দুই বাসের সংঘর্ষে ৫ জন নিহত ১৫ জন আহত

বাংলাদেশ সফরটা অষ্ট্রেলিয়ার জন্য কঠিন হবে : ইয়ান চ্যাপেল

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

Ian Chappelসাবেক টেষ্ট কিংবদন্তী ইয়ান চ্যাপেলের ধারণা অষ্ট্রেলিয়া দলের আসন্ন বাংলাদেশ সফরটা বেশ কঠিন হবে। আসন্ন দুই টেষ্টের সিরিজে বাংলাদেশকে হারাতে না পারলে টেষ্ট র‌্যাংকিংয়ে নিচে নেমে যাওয়ার লজ্জাস্কর ঝুঁকিতে রয়েছে অষ্ট্রেলিয়া।

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) টেষ্ট র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ স্থান পুনরুদ্ধারের সম্ভাবনা নিয়ে এ বছরের শুরুর দিকে স্টিভ স্মিথের দল ভারত সফর করেছিল। কিন্তু সেটা সম্ভব হয়নি। এবার আগামী ২৭ আগস্ট শুরু হওয়া দুই টেষ্টের সিরিজে বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশ করতে না পারলে র‌্যাংকিংয়ের ষষ্ঠ স্থানে নেমে যাবে অষ্ট্রেলিয়া।

সেক্ষেত্রে কেবলমাত্র শ্রীলংকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, বাংলাদেশ এবং জিম্ববুয়ের উপড়ে থাকবে অসিরা। যা আসন্ন এ্যাশেজ সিরিজে স্মিথের দলের জন্য দারুন প্রভাব ফেলতে পারে।

এমনটা হয়তোবা অষ্ট্রেলিয়ার ভাবনায় নেই। তবে সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ দলের পারফরমেন্সের কারণে এটা একেবারে অসম্ভব কিছু নেই।

সর্বশেষ ২০১১ সালে চিটাগাং টেষ্টে অষ্ট্রেলিয়ান পেসার জেসন গিলেস্পি ডাবল সেঞ্চুরি করলেও বাংলাদেশ দল এখন আর সে অবস্থাতে নেই। গত বছর নিজ মাঠে ইংল্যান্ডকে হারানো বাংলাদেশকে এখন আর খুব সহজেই হারানো সম্ভব নয়।

চ্যাপেল বলেন, ‘বাংলাদেশ সফরটা অষ্ট্রেলিয়ার জন্য কঠিন হবে এবং আমি মনে করছি না দল (অষ্ট্রেলিয়া) অন্য কিছু বিশ্বাস করে। তবে অবশ্যই সফরটা খুব সহজ হবে না।’

সদ্য শেষ হওয়া দেনা-পাওনা বিতর্ক খুব বেশি প্রভাব ফেলতে পারবে বলেও মনে করছেন না সাবেক এ তারকা ক্রিকেটার।

তিনি বলেন, ‘দেনা-পাওনা বিতর্কের কারণে সফরটা খুব কঠিন হবে তা নয়, এটা কঠিন হবে বাংলাদেশের কন্ডিশনের জন্য এবং গত দেড় বছর বাংলাদেশ সত্যিকারার্থেই যথেষ্ট উন্নতি করেছে।

‘এটা একটা কঠিন সফর হবে। বাংলাদেশকে হাল্কাভাবে নেয়ার কোন অবকাশ নেই। আর নিজ মাঠে হলেতো টাইগারদের বিপক্ষে বিশ্বের যে কোন দলকেই নিজেদের সেরাটা দিতে হবে।’

বোর্ডের সঙ্গে চুক্তি না হলে অষ্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড়রা বাংলাদেশ সফর বয়কটের হুমকি দিয়ে রেখেছিল। দেনা-পাওনা সমস্যার সমাধান হওয়ার পর এটাই হবে অষ্ট্রেলিয়া দলের প্রথম সফর।

চার মাস আগে ভারত সফরে জার টেষ্টের সিরিজে পরাজিত হওয়ার পর থেকেই স্মিথ এবং তার দলের অধিকাংশ সদস্য লংগার ভার্সনের বাইরে আছে।

গত মাসে নির্ধারিত দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য টেষ্ট দলের কতিপয় সদস্যকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। কিন্তু খেলোয়াড়দের বয়কটের কারণে সে সফর বাতিল হয়ে যায়।

দেনা-পাওনা বিতর্ক সম্পর্কে জানতে চাইলে অষ্ট্রেলিয়া কোচ ড্যারেন লেহম্যান স্থানীয় ট্রিপল-এম রেডিওকে বলেন, ‘সমস্যাটা দির্ঘায়িত হোক কোন পক্ষই সেটা চায় না। একজন কোচ হিসেবে আপনিও চাইবেন দ্রুত সমস্যাটা মিটে যাক।’

‘এটা কি কিছুটা হতাশার ছিল না? তবে অবশ্যই একত্রিত হয়ে মাঠে ফিরছে।’

‘এখন আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ হচ্ছে কিছু ভাল ক্রিকেট খেলা..এবং ভক্তদের আনন্দ দেয়া, দলের প্রতি তাদের সমর্থন ফিরিয়ে আনা।ৱ

গত ফেব্রুয়ারীতে ভারত সফরে পুনে টেষ্টে একমাত্র জয় ছাড়া এশিয়ার মাটিতে নয় টেষ্টে হারতে হয়েছে অষ্ট্রেলিয়াকে। ভাল প্রতিদ্বন্দ্বিতা সত্ত্বেও ভারতের কাছে ২-১ ব্যবধানে হারের লজ্জা পেতে হয়েছে স্মিথের দলকে।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ০৭.০৮.২০১৭


Comments are closed.