>> জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩০ ডিসেম্বর : শিক্ষামন্ত্রী >> ইয়েমেনের রাজধানী সানায় আবার সৌদি বিমান হামলা নিহত ৩ >> হবিগঞ্জে ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে ২ জন নিহত

পর্বতারোহীদের চুম্বকের মত আহবান করে এভারেষ্ট : মৃত্যু ও ঝুঁকি বাড়ছে

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

Everestহিমালয়ের এভারেষ্ট শৃঙ্গের পথে মর্মান্তিক বিয়োগান্ত ঘটনা খুবই স্বাভাবিক। এত দিন প্রতি বছর গড়ে ৬ জন করে পর্বতারোহীর মৃত্যু হ’ত এখানে। কিন্তু এ বছর এর মধ্যেই ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। গড় হারের চেয়ে ৪ জন বেশী।

মৃত্যু হার এবং দুর্ঘটনা বৃদ্ধির সাথে সাথে নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। যেমন আগের তুলনায় এখন কয়েক গুণ বেশী পর্বতারোহী এভারেষ্টের চুঁড়ায় উঠার জন্য নেপালে ভিড় করছেন। আসলে এত মানুষকে অনুমতি দেওয়া ঠিক কি না সে প্রশ্ন উঠছে! আবার যারা আসছেন তাদের সবার সুউঁচ্চ পর্বতে উঠার প্রয়োজনীয় অভিজ্ঞতা আছে কী না তাও যাচাই করা হয় না। প্রশ্ন উঠছে, অভিজ্ঞতার বিষয়টি যাচাই না করে সকলকে এভারেষ্টে উঠার অনুমতি দেওয়া ঠিক কী না!

Everest like magnet to climbersএছাড়া বিভিন্ন সময়ে ভূমিকম্প ও অন্যান্য প্রাকৃতিক কারণে এভারেষ্টের গলা থেকে চুঁড়া পর্যন্ত গঠনের ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে। চুঁড়ায় উঠতে শেষ ধাপে হিলারী স্লোপ বলে একটি জায়গা ছিল, যেখান দিয়ে উঠা তুলনামূলক কম কষ্টকর ছিল। কিন্তু ভূমিকম্পের ফলে ঐ স্লোপটি বিলুপ্ত হয়েছে। ফলে চুঁড়ায় উঠা এখন আরও বিপদসংকুল হয়ে পড়েছে। খুব দক্ষ আরোহী ছাড়া সে জায়গা পার হওয়া এখন সবার পক্ষে সম্ভব নয়। এমন কি যে সমস্ত শেরপারা পর্বতারোহীদের সহায়তা করে থাকে তারা পর্যন্ত ঐ এলাকা পার হতে ভীত হয়ে পড়ছে।

হিমালয়ে অভিযান পরিচালনা নিয়ন্ত্রণ ও ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে যারা আছেন, তাঁরা মনে করছেন আজকাল ভ্রমণ সহজসাধ্য হওয়ায় এবং মানুষের আর্থিক স্বচ্ছলতা আসায় অনেকেই এভারেষ্টে উঠার জন্য ছুটে আসেন। তারা ভাবেন শেরপারাই তাদের এভারেষ্টের চুড়ায় নিয়ে যাবে। কাজটা যে মোটেই এত সহজ নয় সেটা তারা বুঝতে চান না।

এর মধ্যে অনেকে আবার প্রতারণার আশ্রয় নিচ্ছেন। এভারেষ্টের শৃঙ্গে না উঠেই সেখানে উঠার দাবী করছেন। এভারেষ্টোর চুড়ায় উঠার পথে অনেকগুলো এমন স্থান আছে যেখানে কৌশল করে ছবি তুললে মনে হবে তিনি চুঁড়াতেই উঠেছেন। এভাবেই প্রতারণঅ করে মিথ্যাকে সত্য করার চেষ্টা চলছে।

সব কিছু বিবেচনা করে এভারেষ্টের চুড়ায় উঠার অনুমতি প্রদানের বিষয়টি আরো্ কঠোর করার চিন্তাভাবনা চলেছে জিমালয়ের উভয় পাশে- নেপাল ও চীনে।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ১৯.০৬.২০১৭


Comments are closed.