- Bangladeshnews - http://bdn24x7.com -

দায়েশ পূর্ব পালমিরায় অত্যাধুনিক মার্কিন অস্ত্র ব্যবহার করছে

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

Syrian IS using US missile in East Palmyra [1]পূর্ব পালমিরায় সিরিয় বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধে দায়েশ অত্যাধুনিক মার্কিন অস্ত্র ব্যবহার করছে। এর মধ্যে রয়েছে বহুমূখী ব্যবহারযোগ্য টাও ক্ষেপণাস্ত্র এবং গ্রাড মাল্টিপল রকেট লাঞ্চার।

আরাক গ্যাসক্ষেত্রে যুদ্ধের সময় তাদের ব্র্যাণ্ড নিউ এসব অস্ত্র ব্যবহার করতে দেখা গিয়েছে। এছাড়া এখন সুখনাহ শহর অভিমূখে সিরিয় বাহিনীর অভিযান ঠেকাতে দায়েশ এসব অস্ত্র ব্যবহার করছে। টাও ট্যাংক বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করে দায়েশ সিরিয় বাহিনীর বেশ কয়েকটি সামরিক যান ধ্বংস করেছে।

এছাড়া সম্প্রতি দায়েশ নিউজ এজেন্সী “আমাক” কিছু ভিডিও এবং ছবি প্রকাশ করেছে যেখানে দেখা যাচ্ছে টাও গাইডেড মিসাইল ব্যবহার করে দায়েশ সন্ত্রাসীরা সিরিয় বাহিনীর ট্যাংক ও সামরিক যান ধ্বংস করছে।

দায়েশের হাতে একটি দু’টি নয়, বেশ কিছু সংখ্যক এসব অস্ত্র সিরিয় সেনারা এবং স্থানীয় মানুষ দেখতে পেয়েছে।

যদিও এটা পরিস্কার নয় যে, দায়েশ এসব অস্ত্র কী ভাবে পেল, তবে অনেকে মনে করছেন মার্কিন সমর্থিত আল-নূসরা ফ্রন্ট বা ফ্রি সিরিয়ান আর্মি আমেরিকার দেওয়া এসব অস্ত্র দায়েশের কাছে বিক্রি করেছে। বিশেষ করে উত্তর সিরিয়ার তুর্কি সীমান্তের কাছাকাছি অঞ্চলের সন্ত্রাসীরা এ অস্ত্র বিক্রি করে থাকতে পারে।

Syrian IS using US missile in East Palmyra 1 [2]আবার অনেক সামরিক বিশ্লেষক মনে করছেন, কথিত মডারেট বিদ্রোহী নাম দিয়ে আমেরিকা যে সমস্ত সন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণ দিয়েছিল তাদের অনেকে অস্ত্রসহ দায়েশের সাথে যোগ দিয়েছে।

অনেকে এমনও ভাবছেন যে, আমেরিকা সরাসরি এসব অস্ত্র দায়েশকে দিয়েছে, কারণ, এসব লাঞ্চার পেলেই তা ব্যবহার করা যায়না যদি না এর গোলা বা রকেট থাকে। আর অব্যাহত সরবরাহ না থাকলে, বার বার ব্যবহারের পরও এত সংখ্যক গোলা বা রকেট তারা পাচ্ছেই বা কোথায় সেটাও একটি বড় প্রশ্ন।

দায়েশ এসব অস্ত্র এতটাই কার্যকর ভাবে ব্যবহার করছে যে, আরাক গ্যাস ক্ষেত্রের পূর্ণ দখল নিতে এবং টি-৩ পাম্পিং ষ্টেশনের দিকে সিরিয় বাহিনীর অগ্রাভিযান অনেকটাই শ্লথ করে দিয়েছে।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ১৯.০৬.২০১৭