>> দেশের বিভিন্ন স্থানে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে >> রংপুর পীরগঞ্জে ট্রাক উল্টে ঈদে ঘরমূখী ১৭ জন নিহত >> চীনের সিচুয়ান প্রদেশে জিনমো গ্রামে ভূমি ধ্বসে ১০০ মানুষ নিঁখোজ >> পাকিস্তান একাধিক স্থানে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ৫৪ >> টাঙ্গাইলে বাস-ট্রাকের মুখোমুখী সংঘর্ষে ৪ জন নিহত

তুরস্ককে পারমাণবিক বিদ্যূৎ স্থাপনা নির্মাণ করে দেবে রাশিয়া

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

Turkey akkuyu-nuclear-power-plant1শেষ পর্যন্ত তুরস্কের একটি পারমাণবিক স্থাপনা নির্মাণ করে দিচ্ছে রাশিয়া। তুরস্কের জ্বালানী নিয়ন্ত্রণ বিষয়ক প্রধান কর্তৃপক্ষ ইপিডিকে ২,০০০ কোটি (২০ বিলিয়ন) ডলারের এই প্রকল্প অনুমোদন করেছে।

স্থাপনাটি নির্মাণের দায়িত্ব পেয়েছে রাশিয়ার রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত আণবিক শক্তি সংস্থা রোসাতম। তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলীয় আক্কুইয়ু এলাকার পরিকল্পিত এ প্রকল্প এর আগে কয়েক দফা পিছিয়ে গেছে।

২০১৫ সালের নভেম্বরে সিরিয়া সীমান্তের আকাশে তুরস্ক রাশিয়ার একটি জঙ্গিবিমান গুলি করে ভূপাতিত করলে এই প্রকল্পের কাজ সর্বশেষবারের মতো পিছিয়ে যায়। সে সময় আঙ্কারা-মস্কো সম্পর্কে তীব্র টানাপড়েন তৈরি হলেও পরে ধীরে ধীরে উত্তেজনা কমে আসে।

তুরস্কের জ্বালানী নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ ইপিডিকে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আক্কুইয়ু পরমাণু স্থাপনায় মোট চারটি চুল্লি থাকবে এবং এগুলোর নির্মাণ কাজ ২০২৩ সাল নাগাদ শেষ হবে। পরমাণু শক্তি উৎপাদন কেন্দ্রটি পুরোপুরি চালু হলে এটি তুরস্কের মোট বিদ্যুৎ চাহিদার শতকরা ৬-৭ ভাগ উৎপাদন করতে পারবে বলে বিবৃতিতে আশা প্রকাশ করা হয়েছে।

জ্বালানীর জন্য তুরস্ক প্রায় পুরোপুরি পরনির্ভরশীল। দেশটি বছরে প্রায় ৫,০০০ কোটি (৫০ বিলিয়ন) ডলারের জ্বালানী আমদানি করে। এই নির্ভরশীলতা কমিয়ে আনার লক্ষ্যে আঙ্কারা ২০১৩ সালে ১,২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে রোসাতমের সঙ্গে চুক্তি সই করেছিল। বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য তুরস্ক বর্তমানে রাশিয়া ও ইরান থেকে আমদানি করা গ্যাসের উপর নির্ভরশীল।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ১৬.০৬.২০১৭


মতামত দিন