>> নারায়নগঞ্জ ৭ খুন মামলায় নূর হোসেন তারেক সাঈদসহ ১৫ জনের মৃত্যুদণ্ডেশ বহাল >> আইন সচিব জহিরুল হকের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ তিন মাস স্থগিত : হাইকোর্ট >> উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সাথে রেল ঢাকার যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে >> কোথাও কোথাও মাঝারি ধরণের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে >> পাবনায় দুই বাসের সংঘর্ষে ৫ জন নিহত ১৫ জন আহত

রবিবার মুখোমুখি ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

South Africa Cricket Board and BCCIআইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির গ্রুপ পর্বের ১১তম ম্যাচে আগামীকাল মুখোমুখি হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির এবারের আসরে না থাকলেও ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকার এই ম্যাচটি পরিণত হচ্ছে অলিখিত কোয়ার্টার ফাইনালে। কেননা এ ম্যাচের বিজয়ী দল খেলবে সেমিফাইনালে। লন্ডনের কেনিংটন ওভালে দু’দলের এই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটি আগামীকাল শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বেলা সাড়ে ৩টায়।

জয় দিয়েই এবারের আসরে যাত্রা শুরু করেছিলো ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। টিম ইন্ডিয়া চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে ১২৪ রানের বড় ব্যবধানে এবং প্রোটিয়া ৯৬ রানে হারিয়েছিলো শ্রীলংকা। কিন্তু ‘বি’ গ্রুপে নিজেদের পরের ম্যাচেই হেরে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। ভারত ৭ উইকেটে হারে লংকানদের কাছে এবং প্রোটিয়ারা বৃষ্টি আইনে ১৯ রানে পাকিস্তানের কাছে হারের লজ্জা পায়। তাই গ্রুপে দুই ম্যাচ শেষে চার দলেরই পয়েন্ট সমান ২ করে। ফলে গ্রুপ পর্বে শেষ রাউন্ডের ম্যাচগুলো রুপ নিয়েছে অঘোষিত কোয়ার্টার ফাইনালে। শেষ রাউন্ডে ম্যাচগুলোতে যারা জিতবে তারাই খেলবে সেমিফাইনালে।

র‌্যাংকিং-এর তিন নম্বর দল ভারতের জন্য বড় ধরনের এক চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে। চ্যালেঞ্জ অধিনায়ক বিরাট কোহলির জন্যও। কেননা সীমিত ওভারের অধিনায়ক নির্বাচিত হওয়ার পর কোহলিকে ওয়ানডে ফরম্যাটে এতবড় পরীক্ষার সামনে আগে কখনো পড়তে হয়নি। এবার বড় পরীক্ষাই দিতে হবে তাকে। দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে সেমিফাইনালে তুলতে পারেন কি-না, সেটিই এখন দেখার বিষয়।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে নিজেদের প্রথম দু’ম্যাচেই ৩ শতাধিক রান করে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। পাকিস্তানের বিপক্ষে বোলাররা দুর্দান্ত করলেও, শ্রীলংকার বিপক্ষে নিষ্প্রভ ছিলেন ভারতীয় বোলাররা। তাই বোলিং বিভাগে শক্তি বাড়াতে অফ-স্পিনার রবীচন্দ্রন অশ্বিনকে খেলানোর পরিকল্পনা করছে টিম ইন্ডিয়া। সেক্ষেত্রে কে বাদ পড়বেন, তা এখনো ঠিক করেনি ভারত। এখন পর্যন্ত ভারতের দু’ম্যাচের একটিতেও খেলেননি অশ্বিন।

একাদশ যাই হোক, জয়ই প্রধান লক্ষ্য ভারতের বলে জানালেন দলের মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান কেদার যাদব, ‘আমরা বাঁচা-মরার ম্যাচে দাঁড়িয়ে আছি। জিতলেই সেমিফাইনালে, এটি আমরা বেশ ভালভাবেই জানি। তাই যেভাবেই হোক আমরা এ ম্যাচটি জিততে চাই। দলের সবাই ভালো করতে ও জিততে মুখিয়ে আছে। বোলিং বিভাগে আমাদের আরও ভালো করতে হবে এবং ব্যাটিং-এ সর্তক থাকতে হবে। কারণ দক্ষিণ আফ্রিকার বোলিং লাইন-আপ বেশ শক্তিশালী। তারাও আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে চাইবে, কিন্তু আমরা সেই সুযোগ দেবো না। সেমিতে খেলতে জয়ের জন্য যা করতে হয়, তাই করবো আমরা।’

ভারতের মত জয় ছাড়া অন্য কিছু ভাবছে না বিশ্বসেরা দল দক্ষিণ আফ্রিকাও। দলের ব্যাটিং লাইন-আপ বেশ শক্তিশালী। কিন্তু আগের ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে পুরোপুরিই ব্যর্থ হয় তারা। ১১৮ রানের মধ্যেই ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলে তারা। শেষ পর্যন্ত ডেভিড মিলারের অপরাজিত ৭৫ রানে ৮ উইকেটে ২১৯ রান করে প্রোটিয়ারা। এরপর ৩ উইকেটে ১১৯ রান তুলে বৃষ্টি আইনে ম্যাচ জিতে পাকিস্তান।

তাই ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দলের ব্যাটসম্যানদের নিয়ে আলাদাভাবে কাজ করা দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং কোচ নিল ম্যাকেঞ্জি বলেন, ‘আগের ম্যাচে দলের ব্যাটসম্যানরা খুবই বাজে ব্যাটিং করেছে। তাদের কোথায় কোথায় ভুল ছিলো সেগুলো খুঁেজ বের করে ঠিক করার চেষ্টা করেছি। এমন ভুল পরের ম্যাচে আর হবে না বলে আশা করছি। ব্যাটসম্যানরা ভালো খেলবে এবং বড় স্কোর গড়তে পারবে। যাতে বোলাররা লড়াই করতে পারে। তাই ব্যাটিং-বোলিংয়ে ভালো করে ম্যাচটি জিততে চাই আমরা।’

ভারত স্কোয়াড
বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, যুবরাজ সিং, অজিঙ্কা রাহানে, কেদার যাদব, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটরক্ষক), দিনেশ কার্তিক, হার্ডিক পান্ডে, রবীন্দ্র জাদেজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ভুবনেশ্বর কুমার, জসপ্রিত বুমরাহ, উমেশ যাদব, ও মোহাম্মদ সামি।

দক্ষিণ আফ্রিকা স্কোয়াড
এবি ডি ভিলিয়ার্স (অধিনায়ক), হাশিম আমলা, কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), ফাফ ডু-প্লেসিস, জেপি ডুমিনি, ডেভিড মিলার, ক্রিস মরিস, ওয়েন পার্নেল, আন্দিল ফেলুকুইয়াও, কাগিসো রাবাদা, ইমরান তাহির, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস, কেশব মহারাজ, ফারহান বেহারদিয়ান ও মরনে মরকেল।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ১০.০৬.২০১৭


Comments are closed.