>> কোথাও কোথাও মাঝারি ধরণের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে >> স্পেনের বার্সেলোনায় পথচারীদের উপর ভ্যান নিহত ১৩ আহত ৫০ >> সিরিয়ায় মার্কিন জোটের বিমান হামলায় ৬ বেসামরিক ব্যক্তি নিহত

বকেয়া না নিয়ে বিজিএমইএ ভবন ছাড়বেন না বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা!

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

BGMEA locked downবকেয়া বেতন-বোনাস পরিশোধের দাবিতে রাজধানীর হাতিরঝিলে বিজিএমইএ ভবন ঘেরাও করে বিক্ষোভ করেছেন নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার তারাবো এলাকার ক্লাসটন অ্যাপারেলস কারখানার শ্রমিকরা। শনিবার দুপুরে শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করেন।

সারা দিন শেষে শ্রমিকদের পক্ষ থেকে বেশ কয়েকজন শ্রমিক নেতা বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে সিদ্ধান্ত নেয় যে আগামী ২৬ মে তাদের সমস্ত পাওনা টাকা পরিশোধ করা হবে। কিন্তু এই সিদ্ধান্ত শোনার পর শ্রমিকরা পুনরায় বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে।

শ্রমিকরা জানান, এর আগেও মালিকপক্ষ সময় নিয়ে জানিয়েছিল, ৫ মের মধ্যে সব ধরনের বকেয়া পরিশোধ করা হবে। কিন্তু ৫ মে পার হয়ে গেলেও এখনো বকেয়া বেতন-বোনাস পরিশোধ করা হয়নি। তাই আবার নতুন করে সময়ক্ষেপণ করায় শ্রমিকরা পুনরায় আন্দোলন শুরু করেছেন।

ক্লাসটন অ্যাপারেলস কারখানার নারী শ্রমিকরা বিজিএমইএ ভবনের মূল গেটে দাঁড়িয়ে অবস্থান করছেন। ওই ভবন থেকে তাঁরা কাউকে বাইরে আসতে দিচ্ছেন না, ভেতরেও ঢুকতে দিচ্ছেন না। তাঁদের দাবি, বকেয়া টাকা হাতে না পাওয়া পর্যন্ত কেউই এখান থেকে যাবেন না।

এর আগেও মালিকপক্ষ মিটিং করে তাঁদের অনেকবার টাকা দেওয়ার তারিখ দিয়ে ঘুরিয়েছে। সর্বশেষ গত ৯ মার্চ একটি সমঝোতা স্মারকের মাধ্যমে ৫ মের মধ্যে সব ধরনের বকেয়া পরিশোধ করার আশ্বাস দিয়েছিল। সেই আশ্বাস অনুযায়ী ৫ মে পার হয়ে গেলেও পাওনা টাকা শ্রমিকদের দেওয়া হয় নাই। অনেক শ্রমিক ওই তারিখে টাকা পাওয়ার আশায় রংপুর, গাইবান্ধা, টাঙ্গাইল, বরিশালসহ অনেক জেলা থেকে এসেছেন। কিন্তু টাকা না দিয়ে আবার মে মাসের ২৬ তারিখ পর্যন্ত নতুন করে সময় বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে।

দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে যেসব শ্রমিক টাকা নিতে এসেছেন তাঁদের অনেকের কাছে বাড়িতে ফিরে যাওয়ার মতো টাকা নেই। এই অবস্থায় কোনোভাবেই শ্রমিকরা সময় দিতে রাজি না। তাই পাওনা না পেয়ে আমরা কেউই এই বিজিএমইএ ভবন থেকে চলে যাব না।

সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেখা গেছে, বিজিএমইএ ভবনের মূল গেট ঘিরে রেখেছেন কয়েক শ শ্রমিক। সে কারণে বিজিএমইএ ভবনের ভেতরে অন্য যেসব প্রতিষ্ঠান রয়েছে সে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও ভবন থেকে বের হতে পারছেন না।

ঘট্নাস্থলে উপস্থিত পুলিশ সদস্যরা জানান, শ্রমিকরা শান্তিপূর্ণভাবে এখানে অবস্থান করছেন। তাঁরা কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা ঘটাননি। তবে নিরাপত্তার কারণে এখানে বেশ কিছু পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ০৬.০৫.২০১৭


Comments are closed.