>> ইরাক ও সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলায় নিহত আরও ৬১

যৌন চাহিদা পূরণ না করায় ছেঁটেই দেওয়া হল চরিত্র অভিযোগ নায়িকার

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

archanaশুটিংয়ে তিনি ছিলেন। তবে ছবি মুক্তি পাওয়ার পর দেখা যায় তাঁর চরিত্রের একটা বড় অংশ বাদ পড়েছে। কারণ এক নামজাদা তারকার যৌন চাহিদা পূরণ করেননি তিনি। বিস্ফোরক এই দাবি দক্ষিণী নায়িকা অর্চনার।

ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাস্টিং কাউচের কথা হামেশাই শোনা যায়। এর আগেও বলিউডের একাধিক নায়িকা এর শিকার বলে দাবি করেছেন। কাল্কি কোয়েচলিন থেকে টিস্‌কা চোপড়া— তালিকায় রয়েছেন অনেকেই। কাল্কির দাবি, “অবশ্যই ফিল্ম ইন্ড্রাট্রিতে এটা রয়েছে! আমাকেও এই ধরনের অবস্থার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছিল। তবে আমি কখনও ওই ফাঁদে পা দেইনি। পরিস্থিতি যখনই অস্বস্তিকর মনে হয়েছে, তখনই ওখান থেকে সরে পড়েছি।”

কাল্কির থেকেও খোলামেলা মন্তব্য টিস্‌কার। তিনি বলেন, “এটা একেবারেই লেনদেনের প্রশ্ন। চাহিদা অনুযায়ী অভিনেত্রীদের সংখ্যা কম। ফলে ডিরেক্টর-অ্যাক্টররা অভিনয়ের সুযোগের বদলে উঠতি নায়িকাদের কাছ থেকে কিছুটা বেশিই আশা করে বসেন। আমি তো কখনও শুনিনি এখানে কেউ কাউকে ধর্ষণ করেছে!”

কাস্টিং কাউচের ছায়া যে দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রিতেও ঘোরতর সত্যি তা অর্চনার কথাতে আরও একবার সামনে এল। লেনদেনের এই বাস্তবতা শোনা গিয়েছিল দক্ষিণী পরিচালক সুরজের মুখেও। গত মাসেই তাঁর মন্তব্যে ঝড় বয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়া। তিনি বলেন, “ ফিল্মের নায়কের মারপিট দেখতে দর্শক আসেন না। তাঁরা আসেন নায়িকার গ্ল্যামার দেখাতে। আর পরিচালক হিসেবে আমি কখনও চাইব না নায়িকা শাড়ি পরুক। বরং তাঁকে ছোট পোশাক পরাব।”

এ বারও সেই কড়া বাস্তবতা উঠে এল অর্চনার কথায়। না! সেই নামজাদা তারকার নাম প্রকাশ্যে বলেননি নায়িকা। এমন কি, কোন ছবিতে তাঁর সঙ্গে এ ঘটনা ঘটেছে, বলেননি তা-ও। তবে গোটা পরিস্থিতি খুব বুদ্ধি করে সামল দিয়েছিলেন বলে দাবি তাঁর।

সম্প্রতি এক সাক্ষাত্কারে অর্চনা বলেছেন, ‘‘গোটা ব্যাপারটা আমার খুব মজার লেগেছিল। এত বড় একজন তারকা আমাকে এমন একটা প্রস্তাব দিয়েছিল। তারপর সেটাতে রাজি না হওয়ায় ছবি রিলিজ হওয়ার পর দেখলাম আমার চরিত্রের বেশির ভাগটাই বাদ দেওয়া হয়েছে।’’

তামিল, তেলুগু, কানাড়া, মালয়ালম ছবিতে পরিচিত মুখ অর্চনা। তাঁর এই বক্তব্যের পর শোরগোল শুরু হয়েছে দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রিতে। সকলেই জানতে চান, কোন তারকা অর্চনাকে এ ধরনের প্রস্তাব দিয়েছিলেন।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ১১.০১.২০১৬


Comments are closed.