>> বরগুণায় সাগরে ট্রলার ডুবি ৪ জেলে উদ্ধার ৪ জন নিখোঁজ >> টেষ্ট অধিনায়কত্ব হারালেন মুশফিকুর রহিম >> নতুন টেষ্ট অধিনায়ক সাকিব আল-হাসান সহ-অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ

গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন বাড়ানোর আশ্বাস দুইমন্ত্রীর

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

menon-and-shahjahan-khanজাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের ১৫তম দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে যোগ দেন সরকারের দুইমন্ত্রী। শ্রমিকদের বিভিন্ন দাবির বিষয়ে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরেন তারা।

বেতন বাড়ানোর দাবিতে সমর্থন জানিয়ে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী-এমপিদের বেতন বাড়লে গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন কেন বাড়বে না? তবে, কতটা বাড়বে তা নিয়ে আলোচনা হতে পারে। এ নিয়ে জ্বালাও-পোড়াও নয়, শান্তিপূর্ণভাবে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করতে হবে।’

আর শ্রমিকদের কল্যাণের সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরে নৌ পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেন, ‘১৯৮৪ সালে বেতন ছিল ৫৭০ টাকা। ধাপে ধাপে তা এখন অনেক বেড়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে কারখানা মালিকদের সঙ্গে দর কষাকষি করেছেন। আশাকরি, ২০১৮ সালের প্রথম দিকেই ওয়েজ বোর্ড হবে। শ্রমিক মালিক একে অপরের সহযোগী; তাই অবশ্যই শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা দিতে হবে। আর সবকিছুই হতে হবে আইন ও বিধি-বিধানের মধ্যে।’ জ্বালাও-পোড়াও আন্দোলন ট্রেড ইউনিয়নের কাজ নয় বলেও জানান নৌমন্ত্রী।

জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি আমিরুল হক আমিন এ প্রসঙ্গে বলেন, বেতন বৃদ্ধিসহ শ্রমিকদের নানা দাবি আমরা তুলে ধরেছি। ৫ বছর পর পর ওয়েজ বোর্ড গঠনের কথা থাকলেও সরকারি কর্মচারির বেতন ও মন্ত্রী এমপিদের সম্মানি বাড়ানোর প্রেক্ষাপটে শ্রমিকদের বেতন বাড়ানোর যৌক্তিকতা তুলে ধরা হয়। এ দাবির অনেকটা পক্ষেই মত দেন এ দুই মন্ত্রী। এতে শ্রমিকদের দাবির গ্রহণযোগ্যতাই প্রমাণিত হয় বলে মনে করেন এ শ্রমিক নেতা।

শ্রমিকদের জন্য নিরাপদ কর্মপরিবেশ সৃষ্টির দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, আর যেন কোন রানা প্লাজা বা তাজরিন মানুষকে দেখতে না হয়। সেইসঙ্গে অধিকার আদায়ে শ্রমিকদের ট্রেড ইউনিয়নের সুস্থ চর্চার সুযোগ দিতে হবে। আশুলিয়া শিল্প এলাকায় শ্রমিকদের আন্দোলন বিধি সম্মত ছিল না। এভাবে বা এই প্রক্রিয়ায় মজুরি বৃদ্ধির বিষয়টি আনা উচিত হয়নি। এ আন্দোলনের সঙ্গে শ্রমিক সংগঠনগুলোর সম্পৃক্ততাও ছিল না। তাই দাবি আদায়ে আইন অনুযায়ী শ্রমিকদের ব্যবস্থা নিতে হবে। অযৌক্তিক আন্দোলন শ্রমিক স্বার্থের জন্য ক্ষতিকর বলেও মত দেন আমিরুল হক আমিন।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ৩০.১২.২০১৬


Comments are closed.