>> দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারী বর্ষণ হতে পারে >> মার্কিন বিমান হামলায় সিরিয়ায় আবার ২৮ বেসামরিক নাগরিক নিহত >> ঈদের পরদিন ইয়েমেনে আবার সৌদি বিমান হামলায় নিহত ১০ >> খাগড়াছড়িতে বাস উল্টে মা ও শিশুসহ নিহত ৩ আহত ১৩ >> গোপালগঞ্জে পিক-আপ উল্টে নিহত ১ আহত ৮

নির্বাচন সুষ্ঠু শান্তিপূর্ণ হয়েছে প্রার্থীদের ধন্যবাদ : সিইসি

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

cec-rakibuddinনারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হওয়ায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকীব উদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘মূলত প্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের সহযোগিতায় শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন করা সম্ভব হয়েছে।’

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের মিডিয়া সেন্টারে বৃহস্পতিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ নির্বাচন পরবর্তী এক সংবাদ সম্মেলনে সিইসি এসব কথা বলেন।

সিইসি বলেন, ‘সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য প্রতিবারই আমরা উদ্যোগ নেই। এবার জায়গাটা ছোট ছিল। প্রচুর আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োগ দেয়া হয়েছিল। এছাড়া প্রার্থীরাও সহযোগিতা করেছে।’

তিনি বলেন, নির্বাচনে প্রতিটি ভোটার যাতে নির্ভয়ে, নির্বিঘ্নে, আনন্দচিত্তে ভোট কেন্দ্রে এসে স্বাচ্ছন্দে তার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেন সেজন্য ওই এলাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছিল।

কাজী রকীব উদ্দিন আহমেদ বলেন, কোন প্রকারের অনাকাঙ্খিত ঘটনা ছাড়াই নারায়ণগঞ্জে শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে আচরণবিধি ভঙ্গ এবং নির্বাচনী অনিয়মের কারণে আজও তিনজনকে মোট ৮ হাজার টাকা জমিমানা করা হয়।

নির্বাচনকে অবাধ ও সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানে সবার জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। মাঠ পর্যায়ে নির্বাচনী আচরণবিধি যাতে যথাযথভাবে পালন করা হয় সেজন্য প্রতি ওয়ার্ডে আচরণবধি লঙ্ঘন রোধ সংক্রান্ত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, এখানে ভোটার ৪ লাখ ৭৪ হাজার ৯৩১ জন। প্রথমবারের মত দলীয়ভাবে এ নির্বাচনে ৭টি দলের মেয়র পদে ৭জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। ৯টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ৩৮ জন এবং ২৭টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ১৫৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। এখানে ১৭৪টি কেন্দ্র রয়েছে।

সিইসি বলেন, ‘প্রার্থীরা সবাই বলেছিল আমরা শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন করবো। জনগণের রায় যদি সবাই মেনে নেয় তাহলেই নির্বাচনে কোন বিশৃংখলা হওয়ার সুযোগ থাকে না। এই নির্বাচনের মত পরবর্তী নির্বাচনেও যাতে সবাই জনগণের রায় মেনে নেয় এই আশা করছি।’ এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মাদ আবদুল মোবারক, মো. আবু হাফিজ, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো জাবেদ আলী ইসি সচিবালয়ের সচিব মোহাম্মদ আবদুল্লাহ।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ২২.১২.২০১৬


Comments are closed.