>> পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে তেল ট্যাংকার বিস্ফোরণে ১২৩ জন নিহত

জয়পুরহাটে শাস্ত্রীয় সঙ্গীত উৎসব অনুষ্ঠিত

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

joypurhat-music-festivalশুদ্ধ সাংস্কৃতিক চর্চাকে উজ্জীবিত করা ও গ্রামীণ জনপদে বাংলা গানের শ্রোতাদের শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের সঙ্গে পরিচয় ঘটানোর লক্ষ্যে নিয়ে শুক্রবার সন্ধায় শুরু হয় শাস্ত্রীয়সঙ্গীত উৎসব-১৪২৩ শেষ হয় রাত ১১টায়।

’মধুর চিরসঙ্গীতে ধ্বনিত করো অন্তরে, ঝরিবে জীবনে মনে দিবানিশা সুধানিঝর’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ, জয়পুরহাট জেলা শাখা পৌর মিলনায়তনে ওই শাস্ত্রীয়সঙ্গীত উৎসবের আয়োজন করে।

জাতীয় সঙ্গীতের সঙ্গে মোমের প্রদীপ প্রজ্জলনের মাধ্যমে শাস্ত্রীয়সঙ্গীত উৎসবের উদ্বোধন করেন শাস্ত্রীয় সঙ্গীতে একুশে পদক প্রাপ্ত দেশবরেণ্য প্রবীণ শাস্ত্রীয়সঙ্গীত শিল্পী পন্ডিত অমরেশ রায় চৌধুরী।
উৎসবের শুরুতেই তবলা লহরা (একক বাদন) পরিবেশন করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. দীনবন্ধু পাল। ত্রি-তালে পরিবেশিত তবলা লহরার মধ্যে ছিল পেশকার, কায়দা, রেলা, লগ্গি, উঠান, টুকরা, চক্রধার, পরণ ও গৎ।

আবৃত্তিকার মোস্তাহেদ ফাররোখ ও বনশ্রী চাকীর সঞ্চালনায় শাস্ত্রীয়সঙ্গীত উৎসবে ডা: জগদানন্দ রায় বাগেশ্রী রাগে খেয়াল পরিবেশনায় দর্শকশ্রোতা মুগ্ধ হন।

এ ছাড়াও বেহাল রাগে খেয়াল পরিবেশন করেন বিপুল কুমার, ভিন্ন সরজ রাগে ঠুমরী পরিবেশন করেন ডা: অনন্ত কুমার। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষক ল্যাডলী মোহন মৈত্র (মিলন) ভরত নাট্যম ও কথ্থক আঙ্গিকে দুটি নৃত্য পরিবশন করেন। শরৎ কুমার পাল বাশিঁতে রাগ স্বরসতী ও মিশ্র পাহাড়ী ধনু , যোগ রাগে বেহালায় গোবিন্দ কর্মকার ও অর্চনা প্রামানিক খেয়াল পরিবেশন করেন।

পুলিশ সুপার মো: রশীদুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: তোফাজ্জল হোসেন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষক ও লেখক আবুল কাশেম, জেলা পরিষদের প্রশাসক ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এস এম সোলায়মান আলী, জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি আমিনুল হক বাবুল, জেলা শাখার সভাপতি আফজাল হোসেন, সাধারন সম্পাদক ফেরদৌস আরা লিপি, বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী সহ বভিন্ন সংগঠনের সংস্কৃতি কর্মীরা শাস্ত্রীয়সঙ্গীত উৎসবে উপস্থিত থেকে পরিবেশনা উপভোগ করেন।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, ০৩.১২.২০১৬


Comments are closed.