>> শাওয়ালের চাঁদ দেখা গেছে কাল ঈদ >> পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে তেল ট্যাংকার বিস্ফোরণে ১২৩ জন নিহত

রেডিও-ইলেক্ট্রনিক মারণাস্ত্রের পরীক্ষা চালালো রাশিয়া

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

russian-unrivaled-radio-electronic-weaponরাশিয়া নতুন এক ‘রেডিও ইলেকট্রনিক গান’ বা ‘মাইক্রোওয়েব গান’ উউদ্ভাবন করেছে। এটি দিয়ে শত্রু ড্রোন, যুদ্ধ বিমান এবং ক্ষেপণাস্ত্র অকেজো করে দেয়া যাবে। খবর বার্তা সংস্থা ‘রিয়া নভোস্তি’র।

এই ‘মারণ রশ্মি’ ব্যবহার করে শত্রুর যে কোন উড়ন্ত যানের বেতার সংযোগ, সফটওয়ার এবং ক্ষেপণাস্ত্রের ওয়ারহেড অকেজো করে দেয়া যাবে। শত্রুর উড়ন্ত যান এবং ক্ষেপণাস্ত্র এই ‘রেডিও ইলেকট্রনিক’ রশ্মির হামলার শিকার হলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলবে।

এ জাতীয় অস্ত্র কোন রকম প্রথাগত গুলি বা শেল ব্যবহার না করে “ডিরেক্টেড এনার্জি”র সাহায্যে শত্রুর যুদ্ধ যানকে অকেজো করে দিতে পারে, তার কম্পিউটর সিস্টেম ও সফটওয়ারের কাজ (functionality) বন্ধ করে দিতে পারে। এর ফলে শত্রুর যুদ্ধ যান নিয়স্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনায় পড়তে পারে এবং ধংস হতে পারে। সামরিক পরিভাষায় এ অস্ত্রকে “ডাইরেক্টেড-এর্নাজি উইপন” (DEW) বলা হয়।

russian-unrivaled-radio-electronic-weapon-1এই ব্যবস্থায় বিমানের ইলেক্ট্রনিক ব্যবস্থাকে অকেজো করে দেয়ার জন্য আলট্রা হাই ফ্রিকোয়েন্সি ইমপালস ব্যবহার করা হয়। এ অস্ত্র থেকে অতি উচ্চ কম্পাঙ্কের বেতার তরঙ্গ নিক্ষেপ করা হয়। এ কারণে একে ‘মাইক্রোওয়েব গান’ও বলা হয়। এ অস্ত্র থেকে নিক্ষিপ্ত বেতার তরঙ্গকে ‘মারণ রশ্মি’ বা ‘ডেথ রে’ও বলা হয়। এটি লেসার রশ্মি এবং শব্দতরঙ্গ ব্যবহার করে তৈরী অস্ত্র অপেক্ষা অধিকতর মারণাত্মক ও কার্যকর।

অপ্রতিদ্বন্দ্বী এই অস্ত্রটি তৈরি করেছে রুশ ইউনাইটেড ইন্সট্রুমেন্ট ম্যানুফ্যাকচারিং কর্পোরেশন বা UIMC। নতুন জাতের এমন মারণাস্ত্র বিশ্বের আর কোন দেশের হাতে নেই।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের গোপন মহড়ায় প্রথম এ অস্ত্রের কার্যকারিতা পরীক্ষা করে দেখা হয়। রাশিয়ার প্রতরক্ষা সূত্র জানিয়েছে, পরীক্ষামূলক ব্যবহারে এই অস্ত্রের সক্ষমতা ও কার্যকারিতা আশাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে।

সম্প্রতি অর্মেনিয়ায় অনুষ্ঠিত “উচ্চ প্রযুক্তির সামরিক অস্ত্র” প্রদর্শনীতে এটি প্রদর্শিত হয়।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, জের, ১৫.১০.২০১৬


Comments are closed.