>> জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩০ ডিসেম্বর : শিক্ষামন্ত্রী >> ইয়েমেনের রাজধানী সানায় আবার সৌদি বিমান হামলা নিহত ৩ >> হবিগঞ্জে ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে ২ জন নিহত

দায়েশ আবার ফেসবুকের মাধ্যমে যৌন দাসী বিক্রি করছে

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

IS selling sex slave on face bookইলামিক ষ্টেট ব দায়েশ সদস্যরা ফেসবুক ব্যবহার করে যৌন দাসী বিক্রি করছে। এবং এভাবে মূল্য উল্লেখ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে যৌন দাসী বিক্রি’র সমালোচনার জবাবে বিজ্ঞাপনদাতা সন্ত্রাসী লিখেছে, “চাহিদা ও যোগান বুঝতে হবে, মূল্যটাও চাহিদা ও যোগানের উপর”। ওয়াশিংটন পোষ্টে প্রকাশিত নিবন্ধে এ বিষয়ে আলাকপাত করে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে কারণ, সন্ত্রাসীদের হাতে এখনও শত শত মেয়ে বন্দী রয়েছে এবং তাদেরকে বেচাকেনা করা হচ্ছে।

মে মাসের ২০ তারিখ ফেসবুকে প্রথম একটি ১৮ বছর বয়সী মেয়ের ছবিসহ বিজ্ঞাপন দিয়ে আবু আসাদ আল আলমানী (আলমানী মানে জার্মানী) নামে এক সন্ত্রাসী মূল্য চেয়েছে ৮০০০ ডলার। সাথে লেখা রয়েছে, “যে সকল ভাই যারা একজন দাসী ক্রয় করতে চান, তাদের জন্য, মূল্য ৮০০০ ডলার”। একই দিন কয়েক ঘন্টা পর একই আসাদ আলমানী আরও একটি মেয়ের ছবি দিয়ে বিজ্ঞাপন প্রকাশ করে। এবার মেয়েটির মুখমন্ডল খোলা, কিন্তু মুখটা ফেকাসে এবং চোখ দুটি লাল ও ভেজা। পোষ্টটির সাথে লেখা, আরও একটি দাসী (সাবিহা), এটাও ৮০০০ ডলার। হ্যাঁ কী না?”

আলমানী তার বন্ধুদের আরও লিখেছে, বিয়ে কর এবং আমাদের রাষ্ট্রে (দাওলাহ) আসো। তারা ইরাক ও সিরিয়ায় তাদের দখলকৃত এলাকাকে দাওলাহ বা রাষ্ট্র বলে। এর পর সেখানে কমেন্টের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। অনেকে ভীতসন্ত্রস্থ ও কান্নারত মেয়েটির চাহনি নিয়ে নানা ধরনের কৌতুক করে, আবার অনেকে নাকাব ছাড়া মুখ খুলে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেয়ায় আসাদের সমালোচনা করে। কিন্তু সবাই ৮০০০ ডলার মূল্যটা যুক্তিসঙ্গত মনে করে।

একজন যখন জানতে চায়, মেয়টির দাম ৮০০০ ডলার কেন? তার কী বিশেষ কোন যোগ্যতা আছে? জবাবে আসাদ লিখে, না তার কোন বিশেষ যোগ্যতা নেই, তবে, এটা সাপ্লাই ও ডিম্যাণ্ডের ব্যাপার।

অবশ্য, ফেসবুক কর্তপক্ষ বিজ্ঞাপনটি সাইট থেকে নামিয়ে নিয়েছে। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা ধরণের প্রতিক্রিয়া চলছে।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, জের, ০১.০৬.২০১৬


Comments are closed.