>> ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে তীব্র যানজট চলছে >> সিলেটে পাঁচতলা জঙ্গী আস্তানা ঘিরে রেখেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী >> ময়মনসিংহে ট্রাক সড়কের গর্তে পড়ে ১০ জন নিহত >> লন্ডন হামলাকারী জন্মসূত্রে ব্রিটিশ নাগরিক >> দু’টি মার্কিন বিমান হামলায় মসুলে ২৩০ জন নিহত >> ইসরাইলের সামরিক বাহিনীর গুলিতে ফিলিস্তিনি কিশোর নিহত

মিয়ানমারের উচিৎ নতুন জটিলতা সৃষ্টি থেকে বিরত থাকা

Myanmar president sm-horzবৃহস্পতিবার মিয়ানমারের নৌবাহিনী ২০৮ জন অবৈধ অভিবাসীকে আন্দামান সাগরে তাদের জলসীমা থেকে উদ্ধার করেছে। মিয়ানমার দাবী করেছে উদ্ধারকৃত ২০৮ জনের মধ্যে দুই’শ জনই ‘বাংলাদেশের নাগরিক’।

কিন্তু মিয়ানমার প্রকাশিত উদ্ধারকৃতদের ছবিতে দেখা গেল তাদের মধ্যে প্রায় ৩০ ভাগই শিশু-কিশোর। তাছাড়া পুরুষদের শার্টের উপর দিয়ে লুঙ্গী বাঁধা। বাংলাদেশের অবৈধ অভিবাসীরা যেহেতু কাজের সন্ধানে যায়, সেহেতু তারা সাথে সন্তান বা শিশু-কিশোরদের নেয় না। অপরদিকে বাংলাদেশের পুরুষ বা নারীরা মিয়ানমারের নারী-পুরুষদের মত জামার উপর দিয়ে লুঙ্গী বাঁধে না। তাছাড়া বিদেশী টিভি ক্যামেরার সামনে তারা যে ভাষায় কথা বলেছে তা বাংলাদেশ বা চট্টগ্রাম-কক্সবাজারের ভাষা নয়। বাংলাদেশের মানুষ অবশ্যই অবৈধ পথে সাগর পাড়ি দিয়ে বিদেশ যায়। তবে উপরে বর্ণিত এসব আলামত থেকে প্রমাণিত হয় উদ্ধারকৃত ঐ ২০৮ জন মিয়ানমারের রোহিংগ্যা সম্প্রদায়ভূক্ত নাগরিক।

কিন্তু মিয়ানমার যেমন তাদের দেশে রোহিংগ্যাদের নাগরিক বলে স্বীকার করে না, তাদের ঘরবাড়ি ভেঙ্গে-চুরে, আগুনে পুড়িয়ে ভিটে-মাটি দখল করে নিচ্ছে; হত্যা, ধর্ষণ, নির্যাতন চালাচ্ছে, ঠিক সেই মনস্ত্বত্ব তেকে এসব রোহিংগ্যাকে নিজেদের নাগরিক হিসেবে স্বীকার না করে অসৎ উদ্দেশ্য ‘বাংলাদেশী’ বলে প্রচার করছে। হয়তো কিছুদিন পরেই জাতিসংঘ ও অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থার মাধ্যমে দাবী করে বসবে, “বাংলাদেশ তাদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নিক”!

এমনিতেই রোহিংগ্যা ইস্যুতে মিয়ানমারের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্কে জটিলতা রয়েছে। সে অবস্থায় মিয়ানমারের উচিৎ নতুন জটিলতা সৃষ্টি করা থেকে বিরত থাকা।

বাংলাদেশনিউজ
২৩.০৫.২০১৫


Comments are closed.