>> নায়করাজ রাজ্জাকের দাফন আজ সকাল ১০টায় >> নারায়নগঞ্জ ৭ খুন মামলায় নূর হোসেন তারেক সাঈদসহ ১৫ জনের মৃত্যুদণ্ডেশ বহাল >> আইন সচিব জহিরুল হকের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ তিন মাস স্থগিত : হাইকোর্ট >> কোথাও কোথাও মাঝারি ধরণের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে >> পাবনায় দুই বাসের সংঘর্ষে ৫ জন নিহত ১৫ জন আহত

গণতন্ত্র রক্ষায় জনগণ যে কোন ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত : হাছান মাহমুদ

নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ

hasan_mahmudআওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন, বিএনপি গণতন্ত্রকে হত্যা করার জন্য আগামী ৫ জানুয়ারি দেশে বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি করতে চায়।

তিনি শনিবার সকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বীরউত্তম খাজা নিজামুদ্দিন মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে ‘অপপ্রচার-ষড়যন্ত্র করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বাধাগ্রস্ত করা যাবে না’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিএনপি গত ৫ জানুয়ারির আগে দেশে বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি করে অগণতান্ত্রিক সরকারকে ক্ষমতায় আনার ষড়যন্ত্র করেছিল।

তিনি আরো বলেন, দেশের মানুষ যেভাবে অনির্বাচিত সরকারকে ক্ষমতায় আনার ষড়যন্ত্র প্রতিহত করেছে সেভাবে ভবিষ্যতেও যে কোন ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করবে।

জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ সম্পাদক ও অগ্রণী ব্যাংক লিমিডের পরিচালক বলরাম পোদ্দার, কৃষক লীগ নেতা এমএ করিম, বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদের সভাপতি মো. জিন্নাত আলী প্রমুখ।

ড.হাছান বলেন, ‘ বিএনপি দেশে বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি করে গত ৫ জানুয়ারীর নির্বাচন বানচাল করে গণতন্ত্রকে হত্যা করে অগণতান্ত্রিক সরকারকে ক্ষমতায় আনার ষড়যন্ত্র করেছিল।’

তিনি বলেন, ‘ দেশের জনগণ বিএনপির সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে গণতন্ত্রকে রক্ষা করেছে। দেশ বিশেষ পরিস্থিতির কবলে পড়ে নি।’ গণতন্ত্রকে রক্ষায় অতীতের মতো বর্তমানেও দেশের মানুষ যেকোন ত্যাগ স্বীকার করার জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

বিএনপি নেত্রী বেগম জিয়ার সাত দফা দাবীর মধ্যে তার হতাশা প্রকাশ পেয়েছে উল্লেখ করে হাছান বলেন, বিএনপি নেত্রীর এ কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে জনগণের ওপর আস্থাহীনতাও প্রকাশ পেয়েছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ কাউকে রাজনীতি থেকে মাইনাস করার রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। তবে কেউ নিজে নিজেকে মাইনাস করলে এবং নিজ দলের নেতা-কর্মী এবং সাধারণ মানুষ মাইনাস করলে কারো কিছু করার থাকে না।

হাছান বলেন, গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের গণতন্ত্র রক্ষা পেয়েছে এবং গণতান্ত্রিক রাজনীতির বিজয় অর্জিত হয়েছে। তাই আগামী ৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের বিজয় দিবস হিসেবে এ দিনটিকে পালন করবে।

তিনি বলেন, এ দিন বিএনপি-জামায়াত দেশে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে চেষ্ঠা করলে তাদের সমুচিত জবাব দেয়া হবে। ৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ ও সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের রাজপথে থেকে গণতন্ত্রের বিজয়কে সুসংহত করার জন্য তিনি আহবান জানান।

bdn24x7.com, বাংলাদেশনিউজ, এসএস, জের, ০৩.০১.২০১৫


Comments are closed.